শিশুদের সামনে যে কাজগুলো একদম-ই করবেন না

শিশুদের সামনে যে কাজগুলো একদম-ই করবেন না

সন্তান মানুষের মতো মানুষ হোক, এটা সব বাবা-মায়ের চাওয়া। কিন্তু তারাই যদি শিশুদের সামনে খারাপ শব্দ ব্যবহার করে অন্যের সঙ্গে কথা বলে, তাহলে এর প্রভাব শিশুদের উপরেও পড়তে পারে।

আপনি যা করবেন আপনার সন্তানও তাই শিখবে। তাই প্রত্যেক বাবা-মায়ের উচিত নিজেদের আচরণ নম্র ও ভদ্র রাখা। এছাড়া আপনার এটা জানাও খুব গুরুত্বপূর্ণ যে, শিশুদের সামনে আপনার কী করা উচিত এবং কী করা উচিত নয়।

বেশি বেশি ফোন-টিভি ব্যবহার নয়

ফোন এবং টিভি কম ব্যবহার করুন। যদি আপনার সন্তান আপনাকে সারাদিন টিভি বা ফোনে ব্যস্ত থাকতে দেখে, তবে সেও আপনার মতোই একইভাবে সময় কাটাবে। তাই, টিভি ও ফোনের পিছনে সবচেয়ে কম সময় ব্যয় করুন।

অন্যকে অপমান না করা

কাউকে অপমান করবেন না। প্রতিবেশী, বন্ধু বা পরিবারের কোনও সদস্যকে অপমান করে কথা বললে, সেটার প্রভাব শিশুর ওপর ফেলতে পারে। আপনার সঙ্গে কারোর মতপার্থক্য থাকতেই পারে বা আপনি কাউকে অপছন্দও করতে পারেন, কিন্তু শিশুদের সামনে তাদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করবেন না। আপনি এরকম করলে আপনার সন্তানও সেই ব্যক্তিকে কোনও সময় অপমান করতে পারে। আপনি যা করবেন, তারাও সেটাই শিখবে।

খাবার নষ্ট না করা

খাবার নষ্ট করবেন না। আপনার সন্তানকে খাওয়ার গুরুত্ব ব্যাখ্যা করুন। জীবনে খাওয়ার গুরুত্ব কতটা তা তাদের বোঝান। তাই আপনি নিজেও খাদ্য অপচয় করবেন না। খাবার নষ্ট করা খুব খারাপ অভ্যাস, সেটা তাদের বুঝিয়ে দিন।

ভদ্রতা বজায় রাখুন

সন্তান আশেপাশে থাকলে স্বামী-স্ত্রী ভদ্রতা বজায় রাখুন। বাচ্চার সামনে এমন কোনও কাজ করা থেকে বিরত থাকুন, যা তাদের উপর খারাপ প্রভাব ফেলে। সবসময় শৃঙ্খলা বজায় রাখুন এবং ভাল আচরণ করুন।

চিৎকার করবেন না

শিশুদের সামনে কখনও চিৎকার করবেন না। এমনকি খুব বিরক্ত হলে বা রেগে গেলেও বাচ্চার সামনে কখনই চিৎকার করা উচিত না। বরং আপনার মেজাজ নিয়ন্ত্রণে রাখুন। আপনি যদি আপনার সন্তানের সামনে এমনটা করেন, তবে তার মনে হতে পারে যে এটি করা ঠিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.