ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পানিপথে দুই ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ

ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পানিপথে দুই ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ

স্টাফ রিপোর্টারঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়া যেন অবাক করা ঘটনার জন্ম দেওয়ার কারিগর। একের পর এক ব্যাতিক্রমধর্মী কাজ করে আলোচনায় আসে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার। তারই ধারাবাহিকতায় এবার ছোট্ট ঘটনাকে কেন্দ্র করে হয়ে গেল ২য় পানিপথে যুদ্ধ। গল্পের মত লাগলেও ঘটনা সত্য।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে নৌকায় করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে দুই ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ হয়েছে। এতে দুই গ্রামের নারী ও শিশুদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে সংঘর্ষে হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

শনিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের পরমানন্দপুর ও ফতেপুর গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। ওই দুই গ্রামের মধ্যবর্তী কড়াগাঙ্গ এলাকায় দুই গ্রামের লোকজন নৌকায় করে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষ হয়েছে বলে জানান গ্রামের মুরব্বিরা।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় পরমানন্দপুর গ্রামের একাংশের সাথে ফতেপুর গ্রামের যুবকদের মধ্যে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে মারামারি হয়। এরই জের ধরে শনিবার সকালে দুই গ্রামের যুবকরা নৌকা নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হন।

পাকশিমুল ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ফতেপুর গ্রামের বাসিন্দা শরিফ মিয়া বলেন, ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে আমাদের গ্রামের কিছু যুবক পরমানন্দপুর গ্রামের একাংশের যুবকদের সাথে মারামারি করেছে। বর্ষাকালে নৌকা দিয়ে ঝগড়া করা খুবই খারাপ। আমরা বিষয়টি সমাধানে কাজ করছি।

উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বলেন, নৌকায় করে পরমানন্দপুর ও ফতেপুর গ্রামের সংঘর্ষের কথা শুনেছি। মারামারি এখন বন্ধ হয়েছে। মীমাংসার জন্য রোববার আমি ওই দুই গ্রামে যাবো। দুই গ্রামের মুরব্বিদের নিয়ে ব্যাপারটা মীমাংসা করার চেষ্টা করবো।

সরাইল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আনিছুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ব্যবস্থা নিয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.