এই মুহূর্তে আমি কোথায় যাব? – পরীমণি

এই মুহূর্তে আমি কোথায় যাব? – পরীমণি

আজ বুধবার (০১ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হন পরীমণি। কারা ফটক থেকে একটি সাদা গাড়িতে করে বের হতে দেখা যায় পরীকে। পরীমণি সাদা পোশাকে ছিলেন এবং তাকে বহনকারী গাড়ি থেকে একটু বের হয়ে উপস্থিত লোকজনের সঙ্গে সেলফি তুলেতে দেখা যায়।

২৭ দিনের কারাবাসের পর আজ দুপুরে বনানীর বাসায় ফিরেছেন পরীমণি।

পরীমনি জানান- “মাংস দিয়ে ভাত খেয়েছি। বাসায় আসার পর মামা ভাত খাইয়ে দিয়েছেন। আসলে এই ২৭ দিন কিছু মিস করিনি। একটা স্বপ্ন নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলাম। ঘুম ভাঙলো বাসায় চলে এলাম।

কাজে ফেরা সম্পর্কে জানান “কারো সঙ্গেই তো এতদিন যোগাযোগ ছিল না। কদিন বিশ্রাম নিয়ে সবার সঙ্গে কথা বলে কাজ শুরু করবো। এক মাস পুটু (কুকুরছানা) গোসল ছাড়া ছিল। বাসায় এসে ওরে গোসল করিয়ে দিলাম। লবণ পানিতে পা ভিজিয়ে বসে আছি। বাসায় এসে জানতে পারলাম বাসা ছাড়ার জন্য নোটিশ দিয়েছে। এই মুহূর্তে আমি কোথায় যাব? জীবনটা অতিষ্ঠ করে ছেড়ে দিয়েছে।”

পরী জানান, “হাতে ‘ডোন্ট লাভ মি বিচ’ লেখার কারণ। তিনি বলেন, যারা দুমুখো সাপ তাদের বলেছি ‘ডোন্ট লাভ মি বিচ’। আমি চিনে ফেলেছি তারা কারা। তাদের অন্তরে ভালোবাসা নেই। তারা মুখে মুখে বলে ‘লাভ ইউ’। তাদের বলেছি, ভালোবাসা দরকার নেই। অবশ্যই আমি তাদের চিনেছি। তারা যেদিন বিপদে পড়বে বুঝবে। যাদের নিয়ে গলায় গলায় থাকা, একপ্লেটে খাওয়া কই তারা? আমি চলে এসেছি। তারা এখন আবার ওয়েলকাম বলছে। আমি চিনেছি কারা শত্রু, কারা মিত্র।”

গত ৪ আগস্ট রাতে রাজধানীর বনানীর বাসায় পরীমনিকে প্রায় ৪ ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। সেসময় তার বাসা থেকে বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয় বলে জানানো হয়। গ্রেপ্তারের পর তাকে নেয়া হয় র‍্যাব সদর দপ্তরে। পরে র‍্যাব-১ বাদী হয়ে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। সেই মামলার তাকে ২৭দিন কারাগারে থাকতে হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়ায় লড়ে অবশেষ বুধবার সকালে ছাড়া পেয়েছেন চিত্রনায়িকা পরীমনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.