আড়াইহাজার গোপালদী বাজা‌রে স্ব‌র্নের দোকা‌নে ডাকা‌তি, পুলিশ গুলিবিদ্ধ

আড়াইহাজার গোপালদী বাজা‌রে স্ব‌র্নের দোকা‌নে ডাকা‌তি, পুলিশ গুলিবিদ্ধ

ক্রাইম রিপোর্টারঃ আড়াইহাজারের গোপালদী‌ বাজা‌রে ডাকাত-পুলিশের মধ্যে গুলাগুলির ঘটনা ঘটেছে । এই সময় এক পুলিশ গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছে ৭ জন। মঙ্গলবার রাত পোনে ১টায় উপজেলার গোপালদী বাজারে এই ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে গোপালদী তদন্ত কেন্দ্রের এ এস আই সোহরাব হোসেন ডাকাতের গুলিতে আহত হয়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাত পোনে ১টার দিকে বাজারের প্রায় সকল দোকান পাট বন্ধ ছিল। এরই মধ্যে ৩টি স্বর্ণের দোকানে ভেতরে বসে দোকানের কর্মচারীরা কাজ করছিল। ঘটনার সময় স্পীড ও ট্রলার দিয়ে ২০/২৫ জন মুখোশ পরিহিত ডাকাতদল এক সাথে ৩টি দোকানে হানা দেয়। এই সময় খবর পেয়ে গোপালদী বাজারের ডিউটিরত পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হয়।

ডাকাতদল পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি শুরু করে। পুলিশ ও পাল্টা গুলি করে। ৫/৭ মিনিট চলে ডাকাত-পুলিশ গুলিবিনিময়। এই খবর চার দিকে ছড়িয়ে পড়লে থানার ওসি আনিচুর রহমান মোল্লার নেতৃত্বে আশে-পাশের সকল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে ডাকাতদল বাজারের বিপ্লব বিশ্বাস , বলাই সরকার ও আমির হোসেনের দোকান থেকে ১৪ ভরি স্বর্ণ ও ১লাখ ২০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

ডাকা‌তির ঘটনা ঘটার সময় তাৎক্ষ‌নিক গোপালদী বাজারের কর্তব‌্যরত পাহাড়াদাররা গোপালদী বাজার ব‌নিক স‌মি‌তির সাধারন সম্পাদক আবুল মনসুর সা‌হেব‌কে জানা‌নোর সা‌থে সা‌থে তি‌নি গোপালদী ও তার আ‌শে পা‌শের লোকজন নি‌য়ে ঘটনাস্থ‌লে যান এবং সা‌থে সা‌থে পু‌লিশ‌কে অব‌হিত ক‌রে এবং উপ‌স্থিত লোকজন‌কে নি‌য়ে ডাকাত‌কে প্রতিহত করার চেষ্টা ক‌রেন, , তার কিছুক্ষ‌নের ম‌ধ্যে ই পু‌লিশ ঘটনাস্থা‌লে হা‌জির হ‌য়ে প্রতি‌রোধ গ‌ড়ে তু‌লে।

আড়াইহাজার থানার ওসি আনিচুর রহমান মোল্লা আমাদের আড়াইহাজারকে বলেন, খবর পেয়ে আমরা বাজারের চারদিকে ঘিরে ফেলি। তাই বড় ধরণের কোন বিপদ হয়নি। তিনি আরো বলেন, ডাকাতের সাথে গুলিবিনিময় করার সময় ১৭ রাউন্ড গুলি করতে হয়েছে। ডাকাত গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান শুরু হয়েছে । এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও তিনি জানান।

আহতরা হলো পুলিশের এ এস আই সোহরাব (৩৫) গুলিবিদ্ধ, ডাকাতের দায়ের কোপে আহত দোকানের কর্মচারী রাজু (২০), কুদ্দুস( ১৫), সুধাচন্দ্র দাস (২৫) ও বলাই চন্দ্র (৫০)কে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আহত পুলিশকে ঢাকা মেডিকেল চিকিৎসা শেষে বাসায় নিয়ে আসা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.