অপু ভাইকে নিয়ে ওয়েব সিরিজ, সমালোচনায় অনন্য মামুন

অপু ভাইকে নিয়ে ওয়েব সিরিজ, সমালোচনায় অনন্য মামুন

“অপু ভাই, হ্যাঁ ভাই”। হ্যাঁ ঠিক ধরেছেন। টিকটকের ভাইরাল অপু ভাই। সম্প্রতি এই অপু ভাইয়ের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে জানা যায় পরিচালক অনন্য মামুন তার পরবর্তী ওয়েব সিরিজের একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অপু কে কাস্ট করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে চলছে সমালোচনার ঝড়। ফেসবুকে অপু ভাইয়ের একটি ছবি পোস্ট করে নির্মাতা লিখেছেন, ‘কে কিভাবে নেবেন আমি জানি না, তবে মানুষের চেষ্টাকে আমি সম্মান করি। যার চেষ্টা আছে আমি তাকে সাহায্য করি। সিনিয়র বনাম জুনিয়র ওয়েব সিরিজে আপনাদের সামনে অপু ভাই আসবে আলিয়ান হয়ে (চরিত্রের নাম)। এক মাস অভিনয়ের প্রশিক্ষণ নিয়ে ক্যামেরার সামনে দাঁড়াবে অপু।’

নতুন লুকে অপু ভাই, ছবিঃ ফেসবুক

এরপর অপুর নতুন লুকের আরেকটি ছবি পোস্ট করেন মামুন, ক্যাপশনে ছিলো- “সবাই বলবে, তোমার সাফল্যে জ্বলবে..কাউকে ছোট করে তারাই দেখে যাদের কোন যোগ্যতা নেই”।

নতুন লুকে অপু ভাই, ছবিঃ ফেসবুক

দুটি ছবিতেই মানুষ মন্তব্য করছেন।

সিরাজুল ইসলাম নিরব নামের একজনের মন্তব্য ছিলো- ”

ভাই, যদিও এটা নিতান্তই আপনার ব্যক্তিগত ব্যাপার কিন্তু যদি দর্শকদের উদ্দেশ্যে কিছু বানাতে চান তাহলে মোটেও সমর্থন করতে পারলাম না। অসংখ্য ট্যালেন্টেড আর্টিস্ট পড়ে আছে আমাদের চারপাশে, যারা লম্বা সময় ধরে থিয়েটার করে যাচ্ছে। এতে এদের অবমূল্যায়ন ও নিরুৎসাহিত করা হবে। আমার মতে যারা মিনিমাম স্ট্যান্ডার্ড স্কেলটা মেইনটেইন করে তারা হয়তো টিকটক বা লাইকি এগুলোকে থার্ড ক্লাস গেটওয়ে ছাড়া অন্য কিছু ভাবে না , আর যদি যোগ্যতার কথা বলেন তবে আমি বলবো ওদের মাঝে এমন কিছু দেখিনি এখনো কারণ কাজ করতে গিয়ে অনেক তারকাদেরও অডিশনের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন নির্মাণ থেকে বাদ দিতে হয়েছে।
অনুরোধ রাখবো যারা শিল্পী তাঁদের প্রতিভা কে বিকশিত করবেন, শুভকামনা আপনার জন্য ।”

ভাই আমি বিশ্বাস করি একজন গুনি ডিরেক্টর রাস্তা থেকে কাউকে তুলে এনে ভালো কিছু তৈরি করতে পারে।তাই বলে কি নর্দমার ময়লাকে নিয়ে এসে খাঁটি সোনা বানাতে হবে? যেখানে শত শত সোনা পরে আছে শুধু একটু ঘসা মাঝার অপেক্ষায়। ভাই এদের কে প্রমোট করার অর্থ হচ্ছে আগামী দিনে ইন্ডাস্ট্রিকে আমরা হিরো আলম,অপু,কান হেলাল এর মতো আরো অনেক কে উপহার দিচ্ছি। আমাদের ধ্বংস খুবই সন্নিকটে, এর জন্যে কারা দাই?????” – সুজন ইউসুফ।

শুভ্র সাগর নামে একজন লিখেছেন- “জ্বী ভাই, অপু এত বড় তারকা যে আসলেই হিংসায় জ্বলতেসি। কয়েকদিন ধরে যা শুরু করসেন আপনি এইটারে নিয়া মনে হইতেসে সত্যজিত রায়ের পথের পাচালীর সিক্যুয়েল শুরু করতেসেন আর আপনি অনন্য মামুন না,জেমস ক্যমেরন! এইসব পাবলিসিটি পলিসি বাদ দিয়ে কাজে মন দেন। আপনার হাত ধরে যদি অপু,হিরো আলম রা আগাইতে পারে তাইলে আগাক। আল্লাহর দোহাই হুদাই ফেসবুকে এত প্যরা দিয়েন না। আপনের এই ভাংগা কলসী এত বেশী বাজতেসে যে পরীমনি ইস্যু ও ফেল।”

পার্থিব আকাশ বলেছেন- “আপনার মতো মেধাবী মানুষের কাছে এটা আশা করা যায় না। এদেশে অনেক মেধাবী তরুণ অভিনেতা আছে পারলে তাদের নিয়ে কাজ করুন। ও তো ঠিক মতো কথাই বলতে পারে না ওকে দিয়ে কি করবেন?

জুয়েল মৃধার মন্তব্যটি ছিলো- “যোগ্যতা মাপার উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ কোথায়? যাদেরকে আপনি অযোগ্য বলছেন তারা কোথায় যোগ্যতার পরীক্ষা দিয়ে অযোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছে ব্যাখ্যা করবেন কি? আপনাদের চলচ্চিত্র জগতে যার সাথে যার লিয়াজোঁ ভালো লবিং ভালো তাদেরকে আপনারা চলচ্চিত্রের সিনেমায় চান্স দিয়ে থাকেন, এটা আমরা সবাই জানি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.